1. miahmohammadshuzan@gmail.com : Central News :
  2. centralnewsbd24@gmail.com : CNB BD : CNB BD
তিস্তা ও ধরলা নদীতে ঝাঁকে-ঝাঁকে বৈরালি মাছ | Central News BD
বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ০১:৫০ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
মিঠাপুকুরে কামরু প্রথমবার, পীরগঞ্জে মণ্ডলের হ্যাট্রিক ফিলিস্তিনে যুদ্ধ বিরতি কার্যকর দাবীতে রংপুরে ছাত্র-জনতার বিক্ষোভে পুলিশের বাঁধা রংপুরে আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের তিন সদস্যের সাজা প্রদান বড় চমক রেখে শক্তিশালী দল ঘোষণা আর্জেন্টিনার রংপুরে সামাজিক সম্প্রীতি ও নাগরিকত্ব বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত বেরোবিতে গাইবান্ধা জেলা সমিতির নেতৃত্বে মোশফিকুর-শাকিল নারীদের জীবনমান উন্নয়নে নীলফামারীর ডিমলায় মহিলা সমাবেশ এরশাদের সমাধিতে পুষ্পমাল্য দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন জিএম কাদের দ্বাদশ জাতীয় সংসদের বাজেট অধিবেশন ৫ জুন ক্রেতারা প্লট বা ফ্ল্যাট কিনে যেন হয়রানির শিকার না হয় : রিহ্যাবকে রাষ্ট্রপতি 

তিস্তা ও ধরলা নদীতে ঝাঁকে-ঝাঁকে বৈরালি মাছ

নিজস্ব প্রতিবেদক, রংপুর
  • আপডেট সময় : রবিবার, ৩ এপ্রিল, ২০২২
  • ৭৭ জন সংবাদটি পড়েছেন
জাল দিয়ে জেলেরা মাছ শিকার করছে।

বৈরালি মাছ শুধুমাত্র প্রবাহমান নদীতে পাওয়া যায়। বৃষ্টির নতুন পানির কারণে তিস্তা ও ধরলা নদীতে হঠাৎ চৈত্র মাসে পানির নতুন প্রবাহ সৃষ্টি হয়েছে। নতুন পানি পেয়ে নদীতে ঝাঁকে-ঝাঁকে বৈরালি মাছ নদীর কিনারায় এসে ডিম ছাড়ছে।

বৈরালি মাছের প্রজনন মৌসুম এখন, তাই নদীর কিনারায় ডিম ও রেণুতে ভরে গেছে। আঁচল ভর্তি পানি নিলে খালি চোখে দৃশ্যমান হয়। নতুন পানি পেয়ে ডিম ছাড়তে এসে জেলেদের জালে ঝাঁকে-ঝাঁকে বৈরালি মাছ ধরা পড়ছে। জেলেদের মুখে হাসি ফুটে উঠেছে।

তিস্তা ও ধরলা পাড়ে ঘুরতে গিয়ে দেখা গেছে জেলেদের মাছ ধরার ধূম। তবে বৈরালি মাছ সাধারণত রাতে জেলেদের জালে ধরা পড়ে। এই মাছ রাতে ঝাঁক বেধে স্রোতের বিপরীতে এই সময় চলে। ডিম পাড়া শেষে আবার গভীর নদীতে ফিরে যায়।

ঝাঁক বেধে বৈরালি মাছ চলার সময় বোয়াল, বাঘাইড়, আইড়, কালবাউশ, বাইম, চিতল, খাকলাসহ নানা প্রজাতির ছোটবড় মাছ বৈরালি মাছকে খাদ্য হিসেবে শিকার করে। বৈরালি মাছ শিকার করতে এসে শিকারি মাছ জেলেদের শিকারে পরিণত হয়ে যায়। বড়-বড় মাছও জেলেদের জালে আটকা পড়ছে।

বৈরালি মাছ সুস্বাদু তাই নদী পাড়ে প্রতি কেজি বৈরালি বিক্রি হচ্ছে ৩০০ থেকে ৪০০ টাকায়। সারারাত জেলেরা যে মাছ ধরে থাকে। সেই মাছ পাইকারগণ ভোরে এসে ঘাট হতে পাইকারি মূল্য কিনে নিয়ে যায়। এসব মাছ বাজারের আড়ৎদারদের মাধ্যমে খুচরা ভোক্তাদের কাছে পৌঁছায়।

প্রায় শুকিয়ে যাওয়া তিস্তা ও ধরলা নদীতে আজ তিস্তা ব্যারেজ পয়েন্ট ও ধরলা সেতু পয়েন্টে প্রায় ৫ হাজার কিউসেকের মতো পানি প্রবাহ রয়েছে। পানি উন্নয়ন বোর্ড বিষয়টি নিশ্চিত করেছে।

মৎস্য সম্পদ দপ্তর সূত্রে জানা গেছে, প্রাকৃতিক পরিবেশে নতুন পানিতে তিস্তা ও ধরলা নদীতে সকল প্রজাতির মিঠাপানির নদীর মাছ ডিম ছাড়ে। এসময় গভীর জল হতে মাছ ঝাঁকে-ঝাঁকে কূলে আসে। তাই জেলেদের জালে বৈরালিসহ নানা প্রজাতির মাছ ধরা পড়ছে।

আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার দিন

এই ক্যাটাগরীর আরও খবর

© ২০২১-২৩ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | সেন্ট্রাল নিউজ বিডি.কম

Theme Designed BY Kh Raad ( Frilix Group )