1. miahmohammadshuzan@gmail.com : Central News :
  2. centralnewsbd24@gmail.com : CNB BD : CNB BD
চট্টগ্রাম বন্দর এলাকা দূষণ করলে দুই বছরের জেল ও জরিমানা | Central News BD
বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ০২:০৮ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
মিঠাপুকুরে কামরু প্রথমবার, পীরগঞ্জে মণ্ডলের হ্যাট্রিক ফিলিস্তিনে যুদ্ধ বিরতি কার্যকর দাবীতে রংপুরে ছাত্র-জনতার বিক্ষোভে পুলিশের বাঁধা রংপুরে আনসারুল্লাহ বাংলা টিমের তিন সদস্যের সাজা প্রদান বড় চমক রেখে শক্তিশালী দল ঘোষণা আর্জেন্টিনার রংপুরে সামাজিক সম্প্রীতি ও নাগরিকত্ব বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত বেরোবিতে গাইবান্ধা জেলা সমিতির নেতৃত্বে মোশফিকুর-শাকিল নারীদের জীবনমান উন্নয়নে নীলফামারীর ডিমলায় মহিলা সমাবেশ এরশাদের সমাধিতে পুষ্পমাল্য দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন জিএম কাদের দ্বাদশ জাতীয় সংসদের বাজেট অধিবেশন ৫ জুন ক্রেতারা প্লট বা ফ্ল্যাট কিনে যেন হয়রানির শিকার না হয় : রিহ্যাবকে রাষ্ট্রপতি 

চট্টগ্রাম বন্দর এলাকা দূষণ করলে দুই বছরের জেল ও জরিমানা

ডেস্ক রিপোর্ট
  • আপডেট সময় : মঙ্গলবার, ৫ এপ্রিল, ২০২২
  • ৬৮ জন সংবাদটি পড়েছেন
চট্টগ্রাম বন্দর এলাকা দূষণ করলে দুই বছরের জেল এবং দুই লাখ টাকা জরিমানার বিধান রেখে মঙ্গলবার সংসদে পাস হয়েছে ‘চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ বিল-২০২২। নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বিলটি পাসের প্রস্তাব করলে তা কণ্ঠভোটে পাস হয়। এর আগে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বিলের ওপর দেওয়া জনমত যাচাই, বাছাই কমিটিতে পাঠানো এবং সংশোধনী প্রস্তাবগুলোর নিষ্পত্তি করেন।
১৯৭৬ সালের চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষ অধ্যাদেশ বাতিল করে নতুন আইন করতে গতবছর ১৫ নভেম্বর বিলটি সংসদে উত্থাপন করা হয়েছিল। বিলে বলা হয়েছে, বন্দর এলাকায় কোনো জাহাজ বা যান্ত্রিক উপকরণের কারণে যদি বর্জ্য তৈরি হয়, তবে তার মালিককে বা মাস্টারকে বা প্রতিনিধিকে তা অপসারণ করতে হবে।
অপসারণে সময়সীমা অতিক্রম করলে মাশুল দিতে হবে। বন্দর কর্তৃপক্ষ সেই বর্জ্য অপসারণ করবে। এর জন্য যে খরচ হবে, তা দ্বিগুণ দায়ীকে দিতে হবে।
বিলে বলা হয়েছে, এ আইনের অধীনে কোনো বিধান লঙ্ঘন করলে (যার শাস্তি উল্লেখ নেই এমন ক্ষেত্রে) সর্বোচ্চ ছয় মাসের শাস্তি এবং দুই লাখ টাকা জরিমানা বা উভয় দণ্ড দেওয়া যাবে। বন্দরের ভাড়া ও টোল আদায়ের বিষয়ে সরকারের কাছে অনুমোদন নিয়ে তফসিল করতে হবে। এক লাখ টাকা পর্যন্ত আদায়যোগ্য ভাড়া, টোল, রেইট, ফি ও মাশুল মওকুফের ক্ষেত্রে অনুমোদন নিতে হবে না।
বন্দরের উন্নয়ন সম্প্রসারণে একটি তহবিল করার কথা বলা হয়েছে বিলে। একজন চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে অনধিক চার সদস্যের একটি পরিচালনা প্রশাসন বোর্ড থাকবে বন্দর পরিচালনার জন্য। প্রতি দুই মাসে অন্তত একটি বোর্ড সভা করার বিধান রাখা হয়েছে।
বিলে বলা হয়েছে কোনো ভাড়া, জরিমানা, ফি, টোল, মাশুল বা ক্ষতিপূরণ অনাদায়ী থাকলে বন্দর কর্তৃপক্ষ তার নিয়ন্ত্রণে থাকা পণ্য নিলাম করে অর্থ আদায় করতে পারবে। কোনো জাহাজের মাস্টার বা জাহাজে কর্মরত কারো অবহেলার কারণে যদি ডক, পিয়ার বা কোনো স্থাপনা বা কর্তৃপক্ষের কোনো ক্ষতি হয়, সেজন্য ক্ষতিপূরণ আদায় করার সুযোগ থাকছে নতুন আইনে।
এই বিলের অধীন অপরাধগুলো মোবাইল কোর্টেও বিচার করা যাবে বলে বিধান রাখা হয়েছে। তবে বন্দর কর্তৃপক্ষের লিখিত অভিযোগ ছাড়া কোনো আদালত এই বিলের অধীনে সংঘটিত কোনো অপরাধ বিচারার্থে গ্রহণ করবে না।

আপনার সোস্যাল মিডিয়ায় শেয়ার দিন

এই ক্যাটাগরীর আরও খবর

© ২০২১-২৩ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত | সেন্ট্রাল নিউজ বিডি.কম

Theme Designed BY Kh Raad ( Frilix Group )